মনের বাঘ

হাতের রেখায় সংবৃত ছিল ভবিষ্যৎ
তাও যেন আজ থমকেই থাকে অরণ্যে
অতীত যা ছিলো সে তো শুধু হলো
দূরাগত এক ধ্বনি বিশেষ

বহুদূরে চাই তবু যদি পাই কাঙ্ক্ষিত
এমনি শঙ্কা বাজায় ডঙ্কা অতঃপর
বুকের মধ্যে কোমল যত্নে অনাগত থাকে প্রার্থিত
এবং বলছে আপ্তবাক্য কিসের ডর

তবু থেকে যায় স্মৃতি ও স্বপ্নে কথায় কর্মে বেজায় ফাঁক
এবং শ্রাবণে ঘন বর্ষণে লাফ দিয়ে ওঠে মনের বাঘ।