প্রকীর্ণ

সুকঠিন হাতে ছিন্ন করেছ হৃদয়বৃত্তি
এই কি সুচারু জীবনযাপন ক্ষুণ্নিবৃত্তি
কখনো দেয়নি অধিকারের শস্যক্ষেত্র
এখনো আকাশে রয়েছে কেবল ঝঞ্ঝা এবং বজ্রপতন
নেইতো সেখানে জীবন-মরণ চিত্ত হরণ ছিষট্টিরূপ ছলাকলা

তবুও তোমায় আমার হৃদয় যাচ্‌না করে
আমার হৃদয় তোমার হৃদয় এবং শরীর খুজেঁ বেড়ায়
খুজেঁ বেড়ায় স্বর্গে-মর্তে এবং আবার স্বপ্ন দেখায়
এই মাটিরই সবুজ স্বপ্ন বর্ণেগন্ধে ঢলোঢলো

যেমন ফুলের মত্ত সুবাস পাঁপড়ি দিয়ে পরাগ ঘিরে অধিষ্ঠিত
যেমন আমের অম্লমধুর বিশেষণটি সোনালি শাসেঁ সমর্পিত
গুণগুলো কি লেপ্টে থাকে জড়িয়ে থাকে অবয়বের ভাজেঁ ভাজেঁ
গুহ্য কোনো বিদ্যাধরের গোপন কলা কেউ জানে না আসলে তা কোথায় থাকে

তেমনি আমার মরণ-বাঁচন জীবন যাপন যা কিছু সব
তোমার দিকেই প্রধাবিত
ভালোবাসার শোভন শরীর স্পর্শ করে
রেখায় রঙে সুরের টানে গমক মীড়ে চককে বেড়ায় স্থির থাকে না
শোনায় তোমায় হায়াৎ সাইফ গুপ্ত কোনো গূঢ় বচন
গভীর কোনো জীবন যাপন এই জী্বনের বিপ্রতীপে
ছায়ার ভেতর
অধরা এক অঙ্গীকারে
অনন্তকাল চলতে থাকে
গভীর কোন জীবন যাপন
সকল কিছুর অগোচরে।